নেই টিউশনের টাকা, ডিউটি সেরে অসহায় দিনমজুরের ছেলেকে শিক্ষাদান পুলিশ কর্মীর

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:51 AM, 31 July 2020
নেই টিউশনের টাকা, ডিউটি সেরে অসহায় দিনমজুরের ছেলেকে শিক্ষাদান পুলিশ কর্মীর

আমাদের দেশের এমন অনেক ঘটনা ঘটে যা দেখে মনে হয় যে দুনিয়াটা এখনো স্বার্থপর হয়ে যায়নি কিছু মানুষ এখনো স্বার্থহীনভাবে অন্যের জন্য ভেবে আসছে। আমরা সকলেই পুলিশের থেকে দূরত্ব বজায় রাখতে বরাবরই পছন্দ করি। ওই যে কথায় আছে না পুলিশে ছুঁলেই আঠারো ঘা তাই বরাবরই পুলিশ আমাদের কাছে একটি ভীতির কারণ। তবে পুলিশ ডিপার্টমেন্টের মধ্যেও রয়েছে দুর্নীতি। ডিপার্টমেন্টের কিছু অসাধু কর্মীদের জন্য বহু অপরাধী নিস্তার পেয়ে যাচ্ছে রোজ দিন। কিন্তু আবার ওই

ডিপার্টমেন্টের মধ্যে অনেক ভালো মানুষ রয়েছে। তারা নিজেদের দায়িত্ব কর্তব্য খুব নিষ্ঠার সাথে পালন করে আসছেন। তারা জানেন তারা সমাজের প্রতি দায়বদ্ধ কখনো কর্তব্যরত ভাবে দায়বদ্ধ আবার কখনো মানবিকতার খাতিরে।ঠিক সেই রকমই একজন পুলিশ অফিসারের মানবিক মুখ উঠে আসলো সোশ্যাল মিডিয়ায়। রজদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় পুলিশের নানান কর্মকাণ্ড ফাঁস হচ্ছে। তার মধ্যে বেশিরভাগ সময় ফাঁস হয় নিজেদের ক্ষমতার অপব্যবহার করে তারা হয়তো বেআইনি ভাবে লুটপাট

করছেন, কখনো আবার ফাঁস হয় তাদের ঘুষ নেওয়ার নানান ভিডিও ক্লিপ। কিন্তু এবার সেরকম কিছুই না বরং একজন পুলিশের মানবিক মুখের দেখা মিললো। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে এক পুলিশ অফিসার রাস্তায় ল্যাম্পপোস্ট এর নিচে দাড়িয়ে দিন মজুরের ছেলেকে পড়াচ্ছেন।ক’রোনা পরিস্থিতি তেও তার এই প্রচেষ্টা থেমে নেই।আসুন এই ছবিটির নেপথ্যের কাহিনী জেনে নেওয়া যাক। আমরা ছবিটিতে যে অফিসার কে দেখতে পাচ্ছি তিনি হলেন

বিনোদ দীক্ষিত। বস্তির সামনে টহল দিতে গিয়ে এক দিনমজুরের ছেলের সাথে আলাপ হয় তার। কথাবার্তা বলে জানতে পারেন বড় হয়ে সে পুলিশ অফিসার হতে চায়। কিন্তু টাকা পয়সার অভাবে সে টিউশন পড়তে পারছে না অথচ পড়াশোনার ওপর আছে তার অধীর আগ্রহ। তখন ওই পুলিশ অফিসারটি নিজে তাকে পড়াতে শুরু করেন। কখনো ল্যাম্পপোস্টের আলোয়, আবার কখনো গাড়ির হেডলাইটের আলোয় কখনো আবার এটিএম এর সামনে তার আলো তে চলতে থাকে পড়াশোনা। সম্প্রতি

ছবিটির সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরাল হয়েছে। যা দেখে একটু হলেও অবাক হতে হয় স্বার্থের দুনিয়ায় এখনো মানবিকতা হারিয়ে যায়নি এই কথাটা আরেকবার স্মরণ করিয়ে দেয় এই ঘটনাটি।

 আমাদের বিসিএস গ্রুপে যোগ দিন

আপনার মতামত লিখুন :