বাংলাদেশ ব্যাংক এডি, সিনিয়র অফিসার, অফিসার রিটেন প্রস্তুতি যেভাবে নিবেন

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  02:59 PM, 25 July 2020
বাংলাদেশ ব্যাংক এডি, সিনিয়র অফিসার, অফিসার রিটেন প্রস্তুতি যেভাবে নিবেন

বাংলাদেশ ব্যাংক এর এডি, সিনিয়র অফিসার, অফিসার, অফিসার ক্যাশ রিটেন প্রস্তুতি যেভাবে নিতে হবে। দেখুন, আগেই বলে নিচ্ছি ১। রিটেনের জন্য আপনি কিন্তু এক্সট্রা কোনো সময় পাবেন না। ২। এটা একেবারে ব্যক্তিগত মতামত। চাইলে অনুসরণ করতে পারবেন। ২০০ মার্কের রিটেনে অনেকেই বাদ পরে যাবেন কেবল সঠিক স্ট্রাটেজির অভাবে। যে কারণে দেখবেন রিটেন বা ভাইভার রেজাল্টের পর অনেকেই একটা কমন দাবি করে বসেন যে সব ম্যাথ পেরেও চান্স পেলাম না। একবার ভাবুন তো,

আপনি ৫ ম্যাথে ৫০ মার্ক তুলতে গিয়ে বাকি ১৫০ মার্কে একেবারে বাজে লিখলেন আর অন্যদিকে আরেকজন ৩ টা ম্যাথ ভালো ভাবে সমাধান করে বাকি ১৫০ মার্ক একেবারে সুপার লেভেল এর একটা ডেলিভারি দিয়ে আসলে কে চান্স পাবেন। এবারের বাংলাদেশ ব্যাংকের অফিসার, গতবারের এডি এবং অফিসার এক্সামে এই জায়গাতেই অনেকেই বাদ পরেছেন আবার অনেকেই এখানে একটা ভাল খেলা খেলতে পেরে চাকুরি পেয়েছেন। তাই চলুন, আজকে রিটেনের স্ট্রাটেজি নিয়ে কিছু বিষয় জানা যাক।

১। আগেই মাথায় এটা সেট করে নিন, কেবল ম্যাথ দিয়ে চাকুরি পাবেন না। এডি এবং অফিসার এক্সামে কোনোভাবেই না(এমন কি অন্যান্য এক্সামেও না, বিশ্বাস না হলে যারা প্যানেলের জন্য অপেক্ষা করছে, তাদের জিজ্ঞেস করুন)। পুরো ২০০ মার্কে ভাল কিছু করে দেখাতে হবে। যদি ৫ টা ম্যাথ থাকে, তবে এখানে ৩ টা ম্যাথ বা ৩০ মার্ক সর্বোচ্চ ১৫ মিনিটে করতে পারবেন। বাকি ২ টা ম্যাথ প্রথমে করতেই যাবেন না। ২। এপ্লিকেশন নিয়ে অনেকেই অবহেলা করে থাকেন। একটা কথা বলে রাখি, একটু ভাল করে ফরম্যাট গুলো ভালো করে বুঝে যেতে পারলেই আপনি এখানে ৮০% পর্যন্ত মার্ক তুলতে পারেন। যে আপনাকে ১ টি ম্যাথ

না পারার কারণে যে পরিমান পিছিয়ে পরতে পারেন, তার জন্য ব্যাক আপ হিসেবে কাজ করবে। ৩। ৩ টা ম্যাথ এবং এপ্লিকেশন এর পর আসবেন প্যাসেজ। ২০ মার্কের খেলা আছে এখানে। দ্রুত সমাধান করতে হবে। খুব কম সময়ের মধ্যে বানান এবং গ্রামার ঠিক রেখে সমাধান করে নিন। ম্যাথে ৩০, এপ্লিকেশন এ ২০ আর প্যাসেজে ২০ যদি ভাল করতে পারেন, তাহলে এখানে ৬০/৬৫ মার্ক পাবেন। এই হল আপনার নিশ্চিত মার্ক তোলার জায়গা। আর এতক্ষনে আপনি এক্সাম হলের চাপের সাথে মোটামুটি অভ্যস্ত হয়েছেন বলা ধরা যায়। ৪। এবার অনুবাদে আসি। বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুবাদ গুলো একটু ভিন্ন হয়। সমাজ

অর্থনীতি, দর্শন এই ধরনের টপিকে তাদের আগ্রহ বেশী। তাই এই ধরনের লেখা পড়তে হবে নিয়মিত। তাহলে এই সেকশনে ভাল করবেন। ৫। ফোকাস রাইটিং নিয়ে আগেও বলেছি। কোয়ালিটি ধরে সময়ের দিকে খেয়াল রেখে লিমিটেড লিখবেন। বাজে ভাবে অনেক লিখার দরকার নেই। ডাটা রাখতে হবে। পারলে ১ টা করে গ্রাফ দেবেন। সুন্দর করে রেফারেন্স দেবেন। কালো আর নীল কালি ছাড়া অন্য কালি ব্যবহার করবেন না। এবার দেখুন, যদি এটা করতে পারেন, তবে, আপনি ম্যাথে, প্যাসেজে আর এপ্লিকেশনে ৬০+ মার্ক পেলে, বাকি ১১০ এ আপনি যদি ৬০% মার্ক পান তাহলে, ৬৬ পাবেন। মানে ১২৬ হয়ে গেল। যদি

৫৫% মার্ক পান, তাও আপনি সব মিলিয়ে ১২০ পাবেন। আপনার হাতে কিন্তু আরো দুইটা ম্যাথ আছে তাইনা, এর মধ্যে কেবল ১ টা ম্যাথ হলেই কিন্তু কাজ হয়ে গেল। স্ট্রাটেজিটা খুব ইন্টারেস্টিং তাইনা। যদিও ম্যাথের মার্কের উপর ভিত্তি করে কিছুটা চেঞ্জ করতে হতে পারে। তবে খুব বেশি কোনো চেঞ্জ করতে হবে না। আমি কিন্তু এভাবেই মোট ৭ টা রিটেনে অংশ নিয়ে প্রথম টায় সফল ভাবে ফেল করে বাকি ৬ টা তেই সফল হয়েছি।

Achilice Barnad সুপারিশপ্রাপ্তঃ সিনিয়র অফিসার, জনতা ব্যাংক এবং রুপালী ব্যাংক।

 আমাদের বিসিএস গ্রুপে যোগ দিন

আপনার মতামত লিখুন :