২০১৮ সালে ফুটবলের সেরা ১০ যারা হলেন

সবার আগে আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

শেষ হল আরো একটি বছর। ফুটবল বিশ্বে যেটা উথান পতনের বছর। এই বছরটায় ছিল ফুটবলের সবচেয়ে বড় ইভেন্ট, বিশ্বকাপ ফুটবলের বছর। স্বাভাবিক উত্তেজনা, উন্মাদনার মধ্যেও ব্যতিক্রমী ছিল রাশিয়া বিশ্বকাপ।

চিরাচরিত ফুটবল শক্তিগুলিকে পিছনে ফেলে উঠে এসেছে নতুন দেশ। জন্ম হয়েছে নতুন তারকাদের। পাশাপাশি ক্লাব ফুটবলে নিজেদের প্রাধান্য ধরে রেখেছে রিয়াল মাদ্রিদ, ম্যানচেস্টার সিটির মত ক্লাবগুলি।

ইপিএল, স্প্যানিশ লিগ ছেড়ে ইউরোপে ফুটবলারদের নতুন গন্তব্য হয়ে দাঁড়িয়েছে ইতালির সিরি আ। আর দশ বছর পর মেসি রোনালদোর একচেটিয়া আধিপত্যে ভাগ বসিয়েছেন লুকা মদ্রিচ।

ফিরে দেখা যাক ২০১৮ সালের সেরা দশ ফুটবলের খবর।

বিশ্বজয়ী ফ্রান্স

রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে পরাজিত করে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ জিতে পগবা-গ্রিজম্যান-এমবাপের ফ্রান্স।

বিদায় জার্মানি

২০১৪ সালের বিশ্বকাপজয়ী জার্মানি রাশিয়া বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্যায়েই বিদায় নেয়। হারতে হয় দক্ষিম কোরিয়ার কাছেও। ৮০ বছরের বিশ্বকাপের ইতিহাসে এই প্রথমবার জার্মানি গ্রুপ পর্যায়েই বিদায় নিয়েছে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের হ্যাটট্রিক

ফাইনালে লিভারপুলকে হারিয়ে পরপর তিনবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী হয় রিয়াল মাদ্রিদ। এই নিয়ে স্প্যানিশ ক্লাবটি ১৩ বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ট্রফি জিতেছে। তাদের সাবেক কোচ জিদান তিনবার কোচিং করিয়ে তিনবারই দলকে চ্যাম্পিয়ন করেন।

সিটি জিতল প্রিমিয়ার লিগ

একাধিক রেকর্ড গড়ে এই বছর ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। প্রথম দল হিসেবে লিগে ১০০ পয়েন্টে পৌঁছেছে গার্দিওয়ালের দল। ৩৮ টি ম্যাচের ৩২টিতেই জিতেছে। গোল করেছে ১০৬টি। গোল পার্থক্য ছিল ৭৯। এই সব তথ্যই প্রিমিয়ার লিগের রেকর্ড।

বিদায় ওয়েঙ্গার

আর্সেনাল ক্লাব ও ফরাসী ম্যানেজার আর্সেন ওয়েঙ্গারের ২২ বছরের সম্পর্কে ছেদ পড়েছে এই বছরই। ম্যানেজার হিসেবে তার শেষ ম্যাচটিকে তিনি ‘দুঃখের দিন’ বলেছিলেন। ২০০৩-০৪ সালে প্রিমিয়ার লিগে অপরাজিত থাকার দরুণ আর্সেনাল ক্লাবকে দেওয়া বিশেষ ট্রফিটি বিদায়বেলায় তার হাতে তুলে দেয় ক্লাব।

হোসে মোরিনহোর ছাঁটাই

২০১৮-১৯ মৌসুমের প্রথমার্ধটা খুবই বাজে যাওয়ায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ক্লাব তাদের ম্যানেজার হোসে মোরিনহোকে ছেঁটে ফেলেছে। ১৭ ম্যাচে মাত্র ২৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পেরেছে উইনাইটেড।

১১ জন ফুটবলারের পিছনে ৪০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেও ক্লাবকে সাফল্য এনে দিতে পারেননি পর্তুগীজ কোচ। তার জায়গায় বাকি মৌসুমের জন্য অস্থায়ী দায়িত্ব পেয়েছেন গানার সোলসার।

মোহাম্মদ সালাহয়ের উত্থান

২০১৭-১৮ মৌসুমের শুরুতে ৩৬ মিলিয়ন ইউরোতে লিভারপুল ক্লাবে সই করেছিলেন সালাহ। প্রথম মৌসুমেই একের পর এক রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন তিনি। ৩৮ প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচে ৩২ গোল করে প্রিমিয়ার লিগে এক মৌসুমে সর্বকালের সেরা গোলদাতা হয়েছেন।

এর আগে ১৯৯৫-৯৬ সালে অ্যালেন শিয়ারার ও ২০০৭-০৮ মৌসুমে ক্রিশ্চিয়ামনো রোনালদো ৩১টি করে গোল করেছিলেন। এছাড়া প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে তিনিই প্রথম এক মৌসুমে তিনবার মাসের সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হন। স্বাভাবিকভাবেই প্রিমিয়ার লিগের গোল্ডেন বুট ট্রফিও তিনিই জেতেন।

রোনালদোর দল বদল

এই বছর রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের হ্যাটট্রিক করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। কিন্তু তারপরেও ২০১৮ সালের গ্রীষ্মকালীন দলবদলে তিনি রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে দীর্ঘ বছরের সম্পর্ক ত্যাগ করে চলে গিয়েছেন ইতালির সিরিআর ক্লাব জুভেন্টাসে। নতুন ক্লাবে রোনালদোর মানিয়ে নিতে সমস্যা না হলেও, রোনালদো বিদায়ের পর এখনও তার পুরনো ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ মানিয়ে নিতে পারেনি।

মহিলা ফুটবলে প্রথম ব্যালন ডি’ওর

৬৩তম ব্যালন ডি’ওর পুরস্কারের আসরেই প্রথমবার বছরের সেরা মহিলা ফুটবলার হিসেবে লিওঁ ও নরওয়ের স্ট্রাইকার অ্যাডা হেগারবার্গকে ব্যালন ডি’ওর দেওয়া হয়েছে। এই বছর মহিলা চ্যম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে এই ২৩ বছরের মহিলা ফুটবলার গোল করে দিতিয়েছেন দলকে। উল্ভসবার্গের বিরুদ্ধে ৪-১ গোলে জেতে লিওঁ। লিগে তিনি মোট ১৫টি গোল করেছিলেন।

মেসি-রোনালদোর আধিপত্যে মদ্রিচের থাবা

গত এক ধসক ধরে হয় মেসি নয়তো রোনালদো, এই দুই ফুটবলারের হাতেই পালা করে উঠেছে ব্যালন ডি’ওর। এইবার সেই একচেটিয়া আধিপত্যের অবসান ঘটালেন ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ।

এই বছর তিনি ক্রোয়েশিয়াকে বিশ্বকাপ ফাইনালে তোলার পাশাপাশি রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ট্রফিও জিতেছেন। ব্যালন ডি’ওর জেতার পর তিনি গত দশ বছরের যারা এই ট্রফি মেসি-রোনালদোর জন্য জিততে পারেননি, তাদের সকলকে উৎসর্গ করেছেন।

 

PDF file Download করতে নিচের ছবিতে ক্লীক করুন

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *