জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ম্যাজিস্ট্রেট হলেন হাওরকন্যা পায়রা

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  06:58 AM, 11 October 2020
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ম্যাজিস্ট্রেট হলেন হাওরকন্যা পায়রা

পায়রা চৌধুরীর শৈশব কেটেছে হাওরপাড়ে। পড়াশোনা করেছেন আনন্দমোহন কলেজে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই এবার ৩৮তম বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন পায়রা। জানা গেছে, নেত্রকোনার মদনে হাওরের প্রত্যন্ত অঞ্চল ফতেপুর গ্রামে জন্ম নিয়েছেন পায়রা।সাবেক চেয়ারম্যান সবল চৌধুরীর মেয়ে তিনি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হওয়ায় প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন পায়রা চৌধুরী। তিনি ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন বিশ্ব বিদ্যালয় কলেজ থেকে ২০১৫ সালে অনার্স ও ২০১৬ সালে মাস্টার্স পাস করেন। পায়রা চৌধুরীর স্বপ্ন ছিল প্রশাসনিক ক্যাডার হওয়ার। সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। পায়রা চৌধুরী বলেন, আমার প্রয়াত এ্যাডভোকেট চাচা মাঈনুল হক চৌধুরীকে দেখে বুঝতে পেরেছি মানুষের

ভালবাসা কি! সে থেকেই একটা তাগাদা ছিল বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডার হওয়ার। আমার স্বপ্ন বাস্তবায়নে এই কঠিন পথে মা-বাবা, ভাই, বোন, শিক্ষকদের কাছে আমি চিরকৃজ্ঞ। এই এডমিন ক্যাডার যেনো আমাকে আমার পূর্ব পুরুষদের যোগ্য উত্তরসূরী বানাতে পারে সেই দোয়া চাই। পায়রা চৌধুরী আরও বলেন, বিসিএসের রেজাল্ট প্রকাশ হওয়ার পর আমার রোলটা দেখে আমি

অঝোরে কান্না আসছিল। শরীরে কোন শক্তি পাচ্ছিলাম না। সবাই ভেবেছিল আমি চেতনা হারিয়ে ফেলবো। আম্মা-আব্বা বোনকে জড়িয়ে ধরে কেঁদেছি। অনেক দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়নে যতটুকু কষ্ট জমা হয়েছিল সেই কষ্টটাকে অশ্রু হিসেবে

ঝরিয়ে দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু তখন মনে হলো কিছু যদি না বলি তবে আমি ফেল করছি ভাববেন আমার মা-বাবা। এতে তাদের স্ট্রোক করার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই জোর করে হেসে বললাম তোমাদের মেয়ে এডমিন ক্যাডার হয়েছে। এডমিন ক্যাডার যেনো আমাকে মানুষের জন্যে কিছু করার সুযোগ দেয় এমন দোয়া চান তিনি।

 আমাদের বিসিএস গ্রুপে যোগ দিন

আপনার মতামত লিখুন :