না’মাজ পড়তে গিয়ে অটোরিকশা হা’রানো রশিদের পাশে দাঁড়ালেন তাসরিফ খান

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  07:24 AM, 26 March 2023

এবার না’মাজ পড়তে এসে অটোরিকশা হারানো প্রতি’বন্ধী রশি’দের পাশে দাঁড়ি’য়েছেন দেশের জনপ্রিয় স’ঙ্গীত শিল্পী ও সমাজ সেবক তাসরিফ খান। এছাড়াও গাজীপুর জেলা ছা’ত্রলী’গের সাধারণ সম্পাদক না’ছির মোড়ল ২৫ হাজার টাকা দিয়েছেন রশি’দকে।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে র’শি’দের অ’সহা’য়ত্বের খবর দেখে আজ শনিবার ২৫ মার্চ বি’কেলে তিনি গা’জী’পুরের শ্রী’পুর উপজে’লায় মাওনা চৌরা’স্তায় যান তাসরিফ খান। সেখান থেকে আব্দুর রশি’দকে তাসরিফের ব্যক্তি’গত গা’ড়িতে তুলে গাজী’পুর মহান’গরের ট’ঙ্গীর কলেজ গেট এলাকায় নিয়ে যান।

সেখানে তাস’রিফ স্কোয়া’ড গাজীপুর টিমে’র সদস্য’রা তাস’রিফের উপ’স্থিতি’তে পা হারানো অটোরি’কশা’চালক আব্দুর রশিদের কাছে একটি অটো’রিকশা হস্তা’ন্ত’র করবেন। ‘আজ শনিবার সন্ধ্যায় তাস’রিফ খান এ তথ্য জানিয়ে বলেন,

বিভি’ন্ন সংবাদ মাধ্যমে রশিদের অস’হায়ত্বে’র সংবা’দ প্রকাশ হয়। শু’ক্রবার রাতে আমি তা জেনে রশি’দের খোঁ’জ চে’য়ে কমে’ন্ট ব’ক্সে লিখি। শনিবার সকালে রশিদের পক্ষ থেকে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করা

হলে বিকেলে মাওনা চৌরা’স্তা’য় গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করি এবং তার অস’হায়ত্বে’র কথা শু’নে রশি’দকে একটি অ’টোরি’কশা কিনে দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

এদিকে গা’জীপুর জে’লা ছাত্র’লী’গের সাধা’রণ স’ম্পাদক নাছির মোড়ল বলেন, আ’ব্দুর রশিদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘট’নাটি আমাকে খুব ব্যথিত করেছে। আমি এতে মর্মাহত।

অটো’রি’কশা চু’রি যাওয়ার খবর পে’য়ে সাথে সাথে রশি’দের সাথে যো’গা’যোগ করি এবং একটি অ’টো’রিকশা কেনার সহ’যো’গিতা বাবদ ২৫ হাজার টাকা তাকে দিয়েছি।

এ সময় অটো’রি’কশা চাল’ক আ’ব্দুর রশিদ জানান, ছোট বয়’সে একটি দু”র্ঘট’নায় এক পা হারা’তে হয় তার। বৃহস্পতিবার ২৩ মার্চ ঘরে ২১ দিন বয়সী শিশু স’ন্তান, ২ বছ’র বয়সী ছেলে, স্ত্রী,

মা ও বাবাকে রেখে উ’পা’র্জনের জন্য অ’টোরি’কশা নিয়ে বের হয়ে’ছিলেন। তার অ’টোরি’ক’শার উপা’র্জ’নেই চলে সংসার খরচ। সারা’দিনের উপা’র্জনের টাকায় ইফ’তার তৈ’রির খা’বার কেনার কথা ছিল।

তিনি বলেন, গা’জীপু’রের শ্রীপু’র পৌ’র এ’লাকা’র মাওনা চৌ’রা”স্তার পুকুর পাড় জামে ম’সজি’দের সাম’নে ঢাকা-ময়ম’নসিং’হ মহা’স’ড়কের ওপর অ’টোরিক’শাটি রেখে আসরের নামাজ পড়তে যান।

নামাজ শেষে রেখে যাও’য়া অটো’রিক’শা না পেয়ে অসহায় হয়ে পড়েন। মা’থায় ভর ক’রে চুরি’ যাওয়া অটো’রি’কশা মেরা’ম’তের জন্য আশা এনজিও থে’কে নে’ওয়া ষা’ট হাজার টাকা’র সা’প্তা’হিক ১৫০০ টাকা’র কি’স্তি ও আ’ট সদস্যে’র সংসার খরচের।

তিনি বলেন, এক পা না থা’কায় আমি সব ধর’নের কাজ করতে পা’রি না। অ’টো’রিকশা চু’রি যাও’য়ার পর আমা’র ও’পর আ’কাশ ভেঙে পড়েছিল। কি’স্তি ও সংসার খরচ কি করে চালাবো সেই চিন্তা’য় অ’স্থির ছিলাম।

সব’শেষ আ’ল্লাহ্ তাসরিফ ভা’ইকে আমা’র কাছে পাঠিয়ে’ছেন। তিনি আমা’কে একটি অ’টোরি’কশা কিনে দি’চ্ছেন। ছাত্র’লীগ নেতা নাছির মোড়ল ভাইয়ের

দেওয়া ২৫ হাজার টাকা ও মাওনা চৌ’রা’স্তার পুকুর পাড় জা’মে ম’সজি’দের মসু’ল্লী’দের দেওয়া টা’কায় আমি আশা এন’জিও থেকে নেওয়া ঋণ পরিশোধ করবো।

আপনার মতামত লিখুন :