প্রাথমিক নিয়োগ পরীক্ষার সেন্টার প্রস্তুত; পরীক্ষা জানুয়ারিতে

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  07:13 AM, 12 December 2021

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম বলেছেন, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় জেলা-উপজেলাগুলোতে সেন্টার প্রস্তুত করা হয়েছে। আমাদের শতভাগ প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এখন এইচএসসি পরীক্ষা চলছে। পরীক্ষা শেষ হলেই ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, আমাদের পরীক্ষার্থী সংখ্যা অনেক বেশি। এইচএসসি পরীক্ষা চলমান থাকায় কেন্দ্রগুলো ফাঁকা নেই। ভেন্যুগুলোতে পরীক্ষা শেষ হলেই কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত হবে। তখন পরীক্ষা আয়োজনে আর কোনো বাঁধা থাকবে না। করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে যেকোনো সময় এই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষা আয়োজনে কী ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পরীক্ষা আয়োজনের জন্য বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। এজন্য সফটওয়্যারও প্রস্তুত করেছে তারা। এমনকি যারা আবেদন করেছেন তাদের প্রাথমিক যাচাই ও শেষ হয়েছে। এখন সফটওয়্যার ওপেন হলেই নিয়োগ পরীক্ষার্থীরা এক ক্লিকিকেই পরীক্ষার নিয়োগ পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা নিতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। এখন শুধু প্রবেশপত্রগুলো দিয়ে পরীক্ষা নেয়া হবে। এর আগে প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন ঘোষণা দিয়েছেন জানুয়ারি মাসেই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

অধিদপ্তর সূত্র জানায়, প্রাথমিকের ইতিহাসে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। গত বছরের ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে। আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হয় গত বছরের ২৪ নভেম্বর। পরে ৭২ ঘণ্টা সময় দেয়া হয় আবেদন ফি জমা দেয়ার জন্য।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ জন প্রার্থী আবেদন করেছেন। এর মধ্যে প্রাক্–প্রাথমিকে ২৫ হাজার ৬৩০ জন এবং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শূন্যপদে ৬ হাজার ৯৪৭ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, এ পদের পরীক্ষা আয়োজনের সব প্রস্তুতি শেষ করেও করোনাভাইরাসের কারণে এত দিন নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন করেনি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। সেপ্টেম্বর মাস থেকে করোনা কমতে শুরু করায় বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান, মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তর চাকরির নিয়োগ পরীক্ষা শুরু করে। কিন্তু প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকের নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা হচ্ছিল না। ফলে এটি নিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের মনে তৈরি হয়েছে নানা সংশয়। সূত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

 আমাদের বিসিএস গ্রুপে যোগ দিন

আপনার মতামত লিখুন :