প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগঃ প্রতি পদের জন্য লড়বেন ৪০ জন

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  06:10 AM, 03 December 2020
ব্রেকিং নিউজঃ স্নাতক ছাড়া প্রাথমিক শিক্ষক হতে পারবেন না নারীরা

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক পদে ইতিহাসের সবচেয়ে পদে নিয়োগ দিচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। সাড়ে ৩২ হাজার পদের বিপরীতে ১৩ লাখ আবেদন জমা পড়েছে। ফলে প্রতি পদের জন্য লড়তে হবে ৪০ জন প্রার্থীকে। অনলাইনে গত ২৫ অক্টোবর থেকে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত এক মাসে ১৩ লাখের মতো আবেদন জমা পড়ে।আবেদনের সময়সীমা ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। তবে

জমাকৃত আবেদনে ভুল সংশোধনের জন্য ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে। ২৮ নভেম্বর থেকে ৪ ডিসেম্বরের মধ্যে তথ্য সংশোধন করা যাবে। জানা যায়, প্রাথমিকের ইতিহাসে এটাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। সৃষ্ট পদ এবং শূন্য পদ মিলিয়ে ৩২ হাজার ৫৭৭ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। নতুন নিয়োগ নীতিমালা অনুযায়ী এবারই প্রথমবারের মতো স্নাতক

পাস ছাড়া আবেদন করতে পারবে না নারী প্রার্থীরা। পুরুষ প্রার্থীদের আবেদনের যোগ্যতা আগের মতোই স্নাতক পাস থাকছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র জানায়, বর্তমানে দেশে ৬৫ হাজার ৬২০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। সর্বশেষ ২০১৮ সালে ১৮ হাজার ১৪৭ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়। নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা

পাওয়ার পর প্রতিটি উপজেলা থেকে শূন্য পদের তালিকা নেওয়া হয়েছে। সে অনুসারেই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। জানা যায়, ২০১৮ সালের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় মৌখিক পরীক্ষা দেন প্রায় ৫৫ হাজার প্রার্থী। তাদের মধ্য থেকে ১৮ হাজার ১৪৭ জনকে নিয়োগ দেওয়া হয়। সম্প্রতি প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা এক বছরের বদলে দুই বছর করার অনুমোদন দিয়েছেন

প্রধানমন্ত্রী। অর্থাৎ প্রাথমিকে আরেকটি শ্রেণি বাড়ছে। আগামী বছর থেকেই এর পাইলটিং শুরু হবে। ২০২৩ সাল থেকে সব বিদ্যালয়ে দুই বছর মেয়াদি প্রাক প্রাথমিক চালু করা হবে। তখন ৬৫ হাজার ৬২০ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আরো একজন করে সহকারি শিক্ষক ও একজন করে আয়া নিয়োগ করা হবে। সূত্রঃ দৈনিক শিক্ষাবার্তা

 আমাদের বিসিএস গ্রুপে যোগ দিন

আপনার মতামত লিখুন :