“বাবা আমাকে কালেমা পড়ে দেন”, শেষবারের মতো বলেছিল মমিনুল

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  11:41 AM, 05 June 2022

“দ্বিতীয়বার ফোন করে মমিনুল বলেছিল, বাবা আমার একটা পা উড়ে গেছে। আমাকে কালেমা পড়ে দেন। এটাই আমার সঙ্গে তার শেষ কথা।”

ছেলের ছবি হাতে নিহত মমিনুলের বাবা। ছবি: টিবিএস
চট্টগ্রামের মহসিন কলেজ থেকে সদ্য অর্থনীতিতে অনার্স শেষ করে চাকরি শুরু করেছিলেন মমিনুল। পরিবারের অভাব দূর করতে এক বছর চাকরি করেই মাস্টার্স শেষ করার ইচ্ছে ছিলো তার। কিন্তু সীতাকুণ্ডের বিএম ডিপোর অগ্নিকাণ্ডে তার সেই স্বপ্ন ভস্মীভূত হয়ে গেছে। আশার প্রদীপ হারিয়ে যেন বোবা হয়ে গেছেন বাবা ফরিদুল ইসলাম। অন্যান্য স্বজনদের আহাজারিতে চারপাশ ভারি হয়ে উঠলেও, তার চোখে ছিল না অশ্রু।

শনিবার রাতে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারি এলাকার একটি কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অন্তত ১৬ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দুই শতাধিক। হতাহতদের মধ্যে ডিপোর কর্মীদের পাশাপাশি পুলিশ সদস্য ও ফায়ার সার্ভিস কর্মী রয়েছেন। মমিনুল হক সেই নিহত শ্রমিকদের একজন।

ছেলের সঙ্গে শেষ কথোপকথনের বিষয়ে বাবা ফরিদুল বলেন, “ফোনেই ছেলের আর্তচিৎকার শুনতে পাচ্ছিলাম। সে চিৎকার করে বলছিল- ‘বাবা এখানে কিছুক্ষণ পরে পরে ব্লাস্ট হচ্ছে।’ দ্বিতীয়বার ফোন করে মমিনুল বলেছিল, ‘বাবা আমার একটা পা উড়ে গেছে। আমাকে কালেমা পড়ে দেন।’ এটাই আমার সঙ্গে তার শেষ কথা।”

আপনার মতামত লিখুন :