বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর প্রেমের টানে আমেরিকান তরুণী গাজীপুরে

 বেকার জীবন
প্রকাশিত :  05:47 PM. 11 July 2022

গাজীপুরের শ্রীপুরে আমেরিকা থেকে লিডিয়া লুজা নামে এক তরুণী প্রেমের টানে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া প্রেমিকের কাছে ছুটে এসেছেন। ঈদের দিন রোববার (১০ জুলাই) রাতে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে বরণ করা হয়েছে।

উপজেলার কেন্দুয়া কুমারপাড়া এলাকার মৃত স্কুল শিক্ষক আহসান উল্লাহ খানের ছেলে ইমরান হোসেন খানের সাথে সামাজিক যোগাযোগেরমাধ্যমে তাদের পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। ইমরান ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, লিডিয়া লুজা খান ভোর তিনটার দিকে হযরত শাহজালাল অন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। সেখান থেকে তরুণ ইমরান খান তাকে স্বাগত জানিয়ে বাড়িতে তোলেন।

লিডিয়া লুজা আমেরিকার অ্যারিজোনা স্টেটের বাসিন্দা। বাবা নেই, মা অন্য পরিবারের সদস্য। দুই ভাইয়ের একমাত্র বোন তিনি। ছোট বেলা থেকেই লিডা লুজা দাদুর সঙ্গে বড় হয়েছে। ধর্মান্তরিত হয়ে এখন তার নামের সঙ্গে স্বামীর পরিবারের উপাধি হিসেবে ‘খান’ শব্দটি যুক্ত হয়েছে। নিজ দেশে একটি চাকরিতে যুক্ত ছিলেন। তবে এখন বেকার সময় কাটাচ্ছেন।

স্বজনরা জানান, বেশ কিছু দিন আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তাদের পরিচয় হয়। এর পর তাদের মাঝে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। চলে তাদের যোগাযোগ। এর আগেও একবার দেশে আসতে গিয়ে বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন জটিলতায় আসতে পারেনি। কোভিড জটিলতায় ইমিগ্রশেন বিভাগ তাকে আটকে দেয়। পরে সব সমস্যা আইনি জটিলতা সমাধান হলে রবিবার রাতে ঢাকা শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দরে ল্যান্ড করেন। পরে ভোরে বাড়িতে আসেন তারা।

প্রতিবেশীরা জানান, তাদের গ্রামে হাজার মাইল দূরের আমেরিকা থেকে এক তরুণী প্রেমের টানে ছুটে এসেছে। ভাবতেই ভালো লাগছে। সকাল থেকেই তারা বিদেশি নতুন বউকে দেখতে বাড়িতে ভিড় করছে। ভাষার কারণে কিছু বুঝানো যাচ্ছে না। কোনো কিছু জানতে চাইলে ছেলে বউকে বুঝিয়ে দিচ্ছে। এতে সে বেশ আনন্দ প্রকাশ করছে।

ইমরান হোসেন খান জানান, চলতি বছরের জানুয়ারির দিকে ফেসবুকের মাধ্যমে তার সাথে আমার পরিচয় হয়। পরে সে পরিচয় প্রেমের সম্পর্কে গড়ায়। এরই মধ্যে একবার এ দেশে আসার চেষ্টা করলেও সমস্যা তৈরি হয়। সে সময় ইস্তাম্বুল আটকা পড়েছিল কোভিড জটিলতায়। পরে আমরা নেপালে দেখা করে সেখানে বিয়ে করি। সে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে। পরে তার নাম রাখা হয়েছে লায়ডা এ লোজা খান।

তিনি আরও বলেন, রবিবার রাতে শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে তাকে রিসিভ করে বাড়ি নিয়ে আসি। বাড়ির অন্যন্যাদের সাথে তার সখ্য গড়ে উঠছে। ভাষাগত জটিলতার কারণে সব কিছু এখনো বুঝে উঠতে পারে না। পরে আমি বুঝিয়ে দিলে সে বুঝে।

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ