৯ লাখ টাকা দিয়েও মেলেনি চাকরি, হতাশায় আত্মহত্যা

বেকার জীবনবেকার জীবন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  06:33 PM, 18 June 2022

প্রায় ৯ লাখ টাকা দিয়েও চাকরি না পাওয়ায় হতাশায় সুমন আলী (২৬) নামে চাঁপাইনবাবগঞ্জের এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।আজ শনিবার (১৮ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার কলাদিয়ার গ্রামের সুজাউদ্দিনের আমবাগান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সুমন আলী গোমস্তাপুর উপজেলার নিমতলা গ্রামের আবুল কালাম আজাদ রেন্টুর ছেলে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় একটি এনজিওতে মাঠকর্মী হিসেবে চাকরি করতেন সুমন আলী। তাকে সেনাবাহিনীতে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কথা জানান একই এলাকার বাসিন্দা ও ফটোকপির দোকানদার মৃত মহসীনের ছেলে সানাউল্লাহ। সেনাবাহিনীতে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নামে সুমনের কাছ থেকে ৮ লাখ ৭০ হাজার টাকা নেন সানাউল্লাহ। তবে চাকরি হয়নি সুমনের। পরে চাকরির জন্য দেওয়া টাকা ফেরত চাইলে নানা টালবাহানা করেন সানাউল্লাহ। এরই সূত্র ধরে শনিবার ফজরের আজানের পর কাউকে না জানিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান সুমন। পরে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে সুজাউদ্দিনের আমবাগানের একটি গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ পাওয়া যায়।

সুমনের মা পারুল বেগম ও তার পরিবারের দাবি, ধারদেনা করা টাকা দিয়েও চাকরি পায়নি সুমন। এনিয়ে সে হতাশায় ভুগছিল। চাকরি দেওয়ার জন্য নেওয়া টাকা দিতেও অস্বীকৃতি জানান সানাউল্লাহ। এনিয়ে হতাশায় সুমন আত্মহত্যা করেছে।

গোমস্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আনারুল ইসলাম বলেন, চাকরির নামে নেওয়া টাকা ফেরত দেওয়া নিয়ে এর আগে তাদের মধ্যে গোমস্তাপুর বাজারে ঝামেলা হয়েছে। এমনকি স্থানীয়ভাবে সালিস করেও এর কোনো সমাধান হয়নি। উল্টো সুমনের নামে থানায় অভিযোগ করেছিল সানাউল্লাহ। ফলে হতাশায় সুমন আত্মহত্যা করেছে।

গোমস্তাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলীপ কুমার দাস জানান, স্থানীয়রা গাছের ডালে ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত সানাউল্লাহকে পুলিশ আটক করেছে। এছাড়াও আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ায় থানায় মামলা করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :